Admission

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল-পিএইচডিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল-পিএইচডিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি। দীর্ঘ ১৬ মাসের বেশি সময় ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো রয়েছে বন্ধ। সকলের জীবনযাত্রার মান এবং পৃথিবীর সবকিছু অনেক পিছিয়ে গিয়েছে এই মহামারী করোনার কারণে। এর মধ্যে আশার বাতির মতো খবর পাওয়া গিয়েছে যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল-পিএইচডিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি শুরু হয়েছে।

নিচে আমরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল-পিএইচডিতে ভর্তির সম্পর্কে সকল তথ্য নিয়ে আলোচনা করবোঃ-

  • জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল-পিএইচডিতে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।এখানে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এমফিল ও পিএইচডি কোর্সে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানা যায়।২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে এসব কোর্সে ভর্তিতে মঙ্গলবার (৬ জুলাই) জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।সকল আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হবে ৮ জুলাই থেকে বলে জানা যায় এবং এ প্রক্রিয়া চলবে ১৭ আগস্ট পর্যন্ত।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিলে ভর্তির জন্য যোগ্যতা লাগবেঃ-

(এমফিল)- ১)সকল পরীক্ষায় ন্যূনতম সিজিপিএ ২.২৫ /দ্বিতীয় বিভাগ/শ্রেণিসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) এবং স্নাতকোত্তর উভয় পরীক্ষার আলাদাভাবে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর বা সিজিপিএ ২.৫০ থাকতে হবে।তবে পাঁচ বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ শিক্ষকদের মধ্যে যাদের উভয় পরীক্ষায় গড়ে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর বা সিজিপিএ ২.৫০ রয়েছে, তারা আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।এগুলা যোগ্যতা থাকলে আপনিও আবেদন করতে পারবেন এবং এমফিল এ ভর্তি হতে পারবেন।

২)এছাড়া স্নাতকসহ (পাস) স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারীদের ক্ষেত্রে উভয় পরীক্ষার আলাদাভাবে ন্যূনতম ৫৫ শতাংশ নম্বর বা সিজিপিএ ২.৭৫ থাকতে হবে। আর অধিভুক্ত কলেজ শিক্ষকদের মধ্যে যাদের স্নাতক (পাস) ও স্নাতকোত্তর উভয় পরীক্ষায় গড়ে ন্যূনতম ৫৫ শতাংশ নম্বর বা সিজিপিএ ২.৫০ রয়েছে তারা আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।এ যোগ্যতা আপনার থাকলে আপনিও এমফিলে ভর্তি হতে পারবেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডিতে ভর্তির জন্য যোগ্যতা লাগবেঃ-

(পিএইচডি) ১)এখানে পিএইচডির জন্য এমফিল/ সমমানের ডিগ্রিধারী হতে হবে।

২)এছাড়াও পিএইডির জন্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য-ক্যাম্পাস এম এ এস এ্যাডভান্সড এম বি এ ডিগ্রিধারীরাও পিএইচডি প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবে। উভয়ক্ষেত্রে প্রার্থীর স্বীকৃত জার্নালে ন্যূনতম পক্ষে একটি গবেষণা প্রবন্ধ থাকতে হবে।

৩)এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের মধ্যে, যাদের শিক্ষা জীবনে ন্যূনতম তিনটি প্রথম বিভাগ/শ্রেণি তিন বছর শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা এবং দেশি-বিদেশি স্বীকৃতমানের জার্নালে কমপক্ষে দুটি গবেষণামূলক প্রবন্ধ রয়েছে তারা সরাসরি পিএইচডি প্রোগ্রামে আবেদন করতে পারবে। বাংলা ও ইংরেজি বিষয়ের ক্ষেত্রে শিক্ষাজীবনে ন্যূনতম দুটি প্রথম বিভাগ/শ্রেণী থাকতে হবে।

৪) আর্টস/ সোশ্যাল সায়েন্স/ বিজনেস স্টাডিজ বিষয়ের গবেষণা প্রবন্ধের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ দুজন লেখক গ্রহণযোগ্য, তবে প্রার্থীকে মূল লেখক হতে হবে। ন্যাচারাল সায়েন্স/লাইফ এন্ড আর্থ সায়েন্স বিষয়ের গবেষণা প্রবন্ধের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ তিনজন লেখক গ্রহণযোগ্য, সেক্ষেত্রেও প্রার্থীকে মূল লেখক হতে হবে।

এ কোর্সের মেয়াদঃ- এমফিল কোর্সের মেয়াদ হলো একবছরের কোর্স কিন্তু ওয়ার্কসহ দুই বছর লাগবে।এছাড়াও পিএইচডি প্রোগ্রামের মেয়াদ ৩ বছর। বিস্তারিত তথ্যের জন্য www.nu.ac.bd ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে বলা হয়েছে

দীর্ঘ ১৬ মাস ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো রয়েছে বন্ধ।এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা তাদের স্বাভাবিক জীবনযাপন থেকে ছিটকে পরেছে।করোনা পরিস্থিতির কারণে সবকিছু রয়েছে বন্ধ।সকল শিক্ষার্থীর একটাই দাবি করোনা পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হলেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো যেনো চালু করা হয় এবং তাদের পড়াশোনা শুরু করা হয়।

এছাড়াও শিক্ষার্থীর একদম পড়াশোনা থেকে ছিটকে না পরতে দেওয়ার জন্য অনলাইনের মাধ্যমে শিক্ষা ব্যবস্থা এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানা যায়।এর কারণ একটি জাতির মেরুদণ্ড হলো শিক্ষা সেক্ষেত্রে শিক্ষা একদম বন্ধ রাখা যাবে না। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের শিক্ষা বিষয়ক এবং চাকরি বিষয়ক তথ্য পেতে আমাদের সাথেই থাকুন সবসময়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker