AdmissionUniversity Admission

সেপ্টেম্বরে হতে পারে ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা

সেপ্টেম্বরে হতে পারে ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা। করোনা মহামরীর কারণে দীর্ঘ ১৬ মাসের বেশি সময় ধরে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে। তথ্য মতে জানা গিয়েছে আগামী সেপ্টেম্বরে হতে পারে ২০ টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা।এর আগে আগস্ট মাসে এ ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তা সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটি।

করোনা পরিস্থিতি এখন ভয়ংকর হয়ে উঠেছে সেকারণে পরিকল্পনা অনুযায়ী পরীক্ষাগুলো নেওয়া সম্ভব হয়ে উঠেনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ও সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষাবিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, ‘আশা করছি, খুব দ্রুত গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক বিষয় নিয়ে অনলাইনে একটি মিটিং অনুষ্ঠিত হবে।

ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার আগে আমাদের কিছু আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করতে হবে।এ কাজগুলো চলমান বিধিনিষেধের কারণে আটকে আছে।’করোনা পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হওয়ার কারণে সবকিছু বন্ধ রয়েছে। এছাড়াও তিনি আরো বলেন, ‘লকডাউন শেষ হলে যত দ্রুত সম্ভব প্রথম পর্যায়ের আবেদনের বাছাইয়ের ফল প্রকাশ করা হবে।এরপর দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন নেয়া শুরু হবে।

দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন শেষ হওয়ার ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে ঘোষণা করা হবে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ। আশা করছি, আগামী সেপ্টেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হবে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা। তবে সবকিছুই নির্ভর করছে করোনা পরিস্থিতির ওপর।’করোনা পরিস্থিতি যদি আরোও অস্বাভাবিক বা ভয়ংকর হয়ে উঠে সেক্ষেত্রে পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করা সম্ভব হয়ে উঠবে না।

** গুচ্ছ পদ্ধতির সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর নাম হলোঃ-

  • শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়,মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়,জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়।

** তিন প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ঃ-

তিন প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক প্রথম বর্ষের গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার জন্য আগামী ১২ আগস্ট নির্ধারণ করা হয়েছে। যদিও এর আগে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল গত ১২ জুন।কিন্তু করোনা মহামারীর ভয়ংকর অবস্থার কারণে সেটা সম্ভব হয়ে উঠেনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সদস্যসচিব ও চুয়েট পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মইনুল ইসলাম বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আগামী ১২ আগস্ট পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত বহাল আছে।

তবে ভর্তি পরীক্ষা কমিটি সার্বিক বিষয় পর্যবেক্ষণ করছে। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এনে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।’করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক নাহলে হয়তোবা পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়ে উঠবে না।আর করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে উঠলে পরিকল্পনা অনুযায়ী যথা সময়ে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

  • ** বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলোঃ- খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট), চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

** সাতটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষাঃ-

দেশের সাতটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক প্রথম বর্ষের গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর। এর আগে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল এ মাসের ৩১ তারিখ।করোনা মহামারী কারণে এর আগে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়ে উঠেনি। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গিয়াসউদ্দিন মিয়া বলেন, ‘এখন পর্যন্ত ৪ সেপ্টেম্বর পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত বহাল আছে।

তবে প্রয়োজন হলে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।এছাড়াও তিনি বলেন করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে পরিকল্পনা অনুযায়ী সবকিছু করা যাবে আর পরিস্থিতি স্বাভাবিক না থাকলে সবকিছু পরিকল্পনা অনুযায়ী করা অসম্ভব হয়ে উঠবে।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলোঃ- বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়,শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়,চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

দীর্ঘদিন ধরে সবকিছু পিছিয়ে যাচ্ছে এবং বন্ধ রয়েছে করোনা মহামারীর কারণে।সকল শিক্ষার্থীদের একটাই চাওয়া শিক্ষা ব্যবস্থা দ্রুত সবকিছু খুলে দিক এবং সব আগের মতো হয়ে উঠুক।করোনা মহামারীর কারণে সকলের জীবনযাপন অস্বাভাবিক হয়ে উঠেছে।আমাদের সকলের এই ভয়াবহ করোনা থেকে রক্ষা পেতে নিজ নিজ জায়গা থেকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা উচিত। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের শিক্ষা বিষয়ক তথ্য এবং বিভিন্ন ধরনের চাকরি বিষয়ক তথ্য পেতে আমাদের সাথেই থাকুন সবসময়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker