Admission

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতকে মেধা-সাধারণ বৃত্তি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতকে মেধা-সাধারণ বৃত্তি পাবেন শিক্ষার্থীরা।বর্তমান বিশ্বে মহামারী করোনার কারণে সবকিছু পিছিয়ে গেছে। এক কথায় মানুষের জীবনযাত্রার মান অনেক টায় কষ্টের হয়ে গেছে। এখন চাকরি পাওয়া সত্যি অনেক মুশকিল।এমনিতেই আমাদের দেশে চাকরির অনেক মারাত্মক ভাবে অভাব। তারপরেও জীবনের এ লড়াইয়ে লড়তে হবে এবং সফলতা অর্জন করতে হবে বা ছিনিয়ে আনতে হবে। এছাড়াও দীর্ঘ ১ বছরেরও বেশি সময় ধরে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে। সকল শিক্ষার্থীর জীবন যাত্রা অস্বাভাবিক হয়ে গিয়েছে। তথ্য অনুযায়ী এই মহামারীর ভেতরে একটি খবর পাওয়া গিয়েছে তা হলো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতকে মেধা-সাধারণ বৃত্তি দেওয়া হবে শিক্ষার্থীদের। নিচে আলোচনা করা হলো জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতকে মেধা-সাধারণ বৃত্তির বিষয়েঃ

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্স ও পাস কোর্সে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে মেধা ও সাধারণ বৃত্তির কোটা বণ্টন প্রকাশ করা হয়েছে। মেধা ও সাধারণ এ দুই স্তরে মোট ৭০২ জন শিক্ষার্থীকে এই বৃত্তি দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত এ–সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। নির্দেশনাটি গত মঙ্গলবার (২৫ মে) মাউশির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ২০২০-২০২১ সালের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতক (পাস) কোর্স পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে বৃত্তি বণ্টন করা হবে।

রাজস্ব খাতভুক্ত বৃত্তির সংখ্যা/কোটা ও টাকার পরিমাণ পুনর্নির্ধারণসংক্রান্ত আদেশের পরিপ্রেক্ষিতে বৃত্তি বণ্টন করতে হবে।

স্নাতক (সম্মান) বৃত্তিঃ এ স্তরে মেধাবৃত্তির সংখ্যা মোট ১৮টি ও সাধারণ বৃত্তি ৩৭৫টি। মেধাবৃত্তি হিসেবে শিক্ষার্থীদের মাসিক ১ হাজার ১২৫ টাকা আর বার্ষিক এককালীন অনুদান হিসেবে ১ হাজার ৮০০ টাকা দেওয়া হবে। আর সাধারণ বৃত্তিপ্রাপ্তদের মাসিক ৪৫০ টাকা ও বার্ষিক এককালীন অনুদান হিসেবে ৯০০ টাকা দেওয়া হবে। বৃত্তির মেয়াদ হবে এক বছর। স্নাতক (পাস কোর্স) বৃত্তি এ স্তরে মেধাবৃত্তির সংখ্যা নয়টি। মাসিক বৃত্তির হার ১ হাজার ৫০ টাকা, বার্ষিক এককালীন অনুদান হিসেবে মোট ১ হাজার ৮০০ টাকা দেওয়া হবে। সাধারণ বৃত্তি প্রদান করা হবে ৩০০ জন শিক্ষার্থীকে। তার মধ্যে প্রতি জেলায় দুজন ছাত্র আর দুজন ছাত্রীকে নির্বাচন করতে হবে। অবশিষ্ট ৪৪টি বৃত্তি মেধার ভিত্তিতে বণ্টিত হবে।

সাধারণ বৃত্তি: সাধারণ বৃত্তি হিসেবে মাসিক ৩৭৫ টাকা আর বার্ষিক অনুদান হিসেবে এককালীন ৬০০ টাকা দেওয়া হবে। সাধারণ বৃত্তির মেয়াদকাল হবে দুই বছর। বৃত্তি প্রদানের শর্তঃ বৃত্তি প্রদানের প্রধান শর্ত হিসেবে বলা হয়েছে, জাতীয় মেধার ভিত্তিতে বৃত্তিপ্রাপ্তদের তালিকা প্রস্তুত করতে হবে। তালিকা প্রস্তুতের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থী অনুপাতে মেধাবৃত্তি এবং সাধারণ বৃত্তির ৫০ শতাংশ ছাত্র আর ৫০ শতাংশ ছাত্রী হিসেবে বণ্টিত হবে। তবে যোগ্য ছাত্রী না পাওয়া গেলে যোগ্য ছাত্রকে সম্পূরক বৃত্তি দেওয়া যাবে। বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী উচ্চতর শ্রেণিতে অধ্যয়নের জন্য ভর্তি হলেই কেবল বৃত্তি ভোগের যোগ্য হবেন। শিক্ষার্থীদের অবশ্যই নিয়মিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উপস্থিত ও পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে।

(সূত্রঃপ্রথম আলো)

এছাড়া বিভিন্ন ধরণের চাকরি বিজ্ঞপ্তি পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker